01

নির্বাচনী পরবর্তী সহিংসতা এড়াতে আইন শৃংখলা বাহিনী কঠোর হতে হবে : ব্রাহ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট

অহেতুক মামলা যেন রুজু না হয় এবং যারা অপরাধী তাদের মামলা যেন বেহাত না হয় সে দিকে ল্য রেখে  সঠিক মামলা যেন হয় সেগুলো এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। বর্তমানে মামলা মোকদ্দমা বারবোঝা হয়ে গেছে। আমরা যত সম্ভব দ্রুত নিষ্পত্তির করছি এবং ভবিষ্যতে করবো। বিশেষ করে নারী ও শিশুদেও প্রতি দৃষ্টি রাখতে হবে। অপরাধীরা যেন অন্যন্যা জেলার মতো দূর্ঘটনা ঘটাতে না পারে। ঘটনার পূর্বে যেন গন্তব্য স্থানে পৌঁছতে পারে সে দিকে সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও তাদের অফিসারগদের খেয়াল রাখতে হবে। গত শনিবার (১৪/০৫/১৬) বিকাল ৩ ঘটিকার সময়  ব্রাহ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সম্মেলন কে   চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত আয়োজিত পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসী সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মনির কামাল এসব কথা বলেন। বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জয়ন্তী রানী রায় এর সঞ্চালনায় তিনি আরো বলেন মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে অতীতে কঠোর ছিলাম এবং ভবিষ্যতেও থাকবো। তিনি বলেন সারা দেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে এবং হবে। বিভিন্ন জেলা নির্বাচনী পরবর্তী সহিংসতা হচ্ছে। কিছু দিন পরে আমাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরসহ কয়েকটি উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হতে যাচ্ছে। অন্য জেলার ন্যায়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যেন নির্বাচনী পরবর্তী সহিংসতা এড়াতে আইন শৃংখলা বাহিনী কঠোর হতে হবে। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শফিকুল ইসলাম, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফ উদ্দিন আহমেদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আলাউদ্দিন, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জয়ন্তী রানী রায়, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সানজিদা আফরিন দিবা, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আহমেদ, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা বেগম, বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান সোহাগ উদ্দিন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জজ কোর্ট পিপি (ভারপ্রাপ্ত) এডঃ নুর মোহাম্মদ জামাল, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর মডেল থানা সার্কেল এম এ করিম, সিভিল সার্জন প্রতিনিধি ডাঃ আবু ছালেহ মোঃ মুসা খান, অতিরিক্ত পিপি নাজমুল হোসেন,  ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালের প্রতিনিধি, র‌্যাব ভৈরব ক্যাম্প অধিনায়ক প্রতিনিধি, ১২নং ব্যাটালিয়নের  প্রতিনিধি, পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক প্রতিনিধি এবং জেলার প্রতিটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও তাদের প্রতিনিধিগন এবং চীফ জুডিডিসয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলওয়াত করেন চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অফিস সহায়ক মোঃ জিয়াউল আমিন, গীতা পাঠ করেন ঝন্টু চক্রবর্তী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *